আপনার ও আপনার প্রত্যক্ষদর্শীর সুরক্ষার জন্য একটি উপায় হতে পারে আইনিভাবে স্বীকৃত, স্বাক্ষরিত, সাক্ষ্যের ভিত্তিতে রচিত হলফনামা। এ ধরনের আইনি বিবৃতি, যার প্রতিটা পৃষ্ঠায় আইনজীবীর উপস্থিতিতে স্বাক্ষর করা হয়, বেশির ভাগ দেশের আদালতে গ্রহণযোগ্য এবং গুরুত্বপূর্ণ আইনি পদক্ষেপ। এতে ইঙ্গিত বহন করে যে প্রয়োজন পড়লে আপনার সূত্র স্বেচ্ছায় আদালতে হাজির হয়ে প্রমাণ দেবেন। বিশ্বাসযোগ্য কোনো আইনজীবীর কাছেই হলফনামা সংরক্ষণ করতে দিতে হয়। আপনার প্রতিবেদনের কারণে কোনো আইনি চ্যালেঞ্জ বা পদক্ষেপ আসলে এই হলফনামাই পরিষ্কার করে দেবে যে আদালত সুরক্ষার ব্যবস্থা করলে আপনার সূত্র নিজের পরিচয় প্রকাশ করতে প্রস্তুত আছেন। প্রতিবেদনে উল্লেখিত তথ্য যদি আপনার সূত্র পরে অস্বীকার করে, তাহলে এই হলফনামা আপনাকে সুরক্ষা দেবে।

হলফনামাটি আপনার প্রতিবেদনে সাহায্য করবে কিনা, তা চিন্তা করুন। আপনার সোর্স হয়তো আইনি কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা দেখে ভয় পেয়ে যেতে পারে। ফলে আগে আপনাকে তার আস্থা অর্জন করতে হবে। বা দলিলপত্র, রেকর্ডিংয়ের মতো তথ্যপ্রমাণের সুরক্ষার জন্য অন্য কোনো পদ্ধতির ওপর নির্ভর করতে হবে।