কোনো প্রতিবেদনের মাধ্যমে পাঠকদের মনে প্রভাব ফেলতে চাইলে আপনাকে এর মূল বিষয় নিয়ে চিন্তা করতে হবে এবং সবচেয়ে শক্তিশালী চিত্রটি তুলে ধরতে হবে। পাঠকের মনোযোগ আকৃষ্ট করার বিষয়ে জেষ্ঠ্য মার্কিন সাংবাদিক স্টিফেন ফ্রাঙ্কলিনের পরামর্শ হলো, শুরুতেই অত্যন্ত ব্যক্তিগত বিষয়কে প্রাধান্য দিন, যাতে একটা জোরালো সূচনার ছবি পাওয়া যায়। প্রথমে জানানো উচিত শুধু ন্যূনতম মৌলিক তথ্য, যার বিস্তারিত পরে আপনি খোলাসা করবেন। তবে, আপনি যা খুঁজে পেয়েছেন সেটি সততার সঙ্গে লেখাও জরুরি। রিপোর্টের সঙ্গে যায় না এমন বিষয় দেখানোর চেষ্টা করবেন না বা ঘটনাকে চাঞ্চল্যকর প্রমাণ করার প্রচেষ্টায় যাবেন না। পাঠকের বিশ^াস অর্জনের বিষয়টি আপনার জন্য সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন। তাই, আপাতদৃষ্টিতে অসত্য বলে মনে হয়, এমন বর্ণনা দিয়ে শুরু করলে আপনার পুরো উদ্যোগই ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।

তথ্যগুলো দেওয়ার পর আপনি আপনার অনুসন্ধানের উদঘাটনগুলো সংক্ষেপে জানিয়ে সেগুলোর প্রমাণ তুলে ধরুন। শব্দচয়নে অসতর্কতা বা তথ্য প্রমাণের সংযুক্তিতে দুর্বলতা রেখে আপনার প্রতিবেদনটি খেলো বানিয়ে ফেলবেন না। এমন করলে, যদি কপাল ভালো থাকে, দেখা যাবে, প্রতিবেদনটি নিরেট হয়নি। আর সবচেয়ে খারাপ হলে দেখা যাবে এটি মানহানিকর হয়ে গেছে এবং তাতে আপনার বিশ^াসযোগ্যতা নষ্ট হতে পারে।
মনে রাখার মতো কয়েকটি বিষয় এখানে: