পাবলিক ক্লাউড বা সবার জন্য উন্মুক্ত ক্লাউড স্টোরেজ যেমন ড্রপবক্স, গুগল ড্রাইভ বা ওয়ানড্রাইভ বিনামূল্যে এবং সহজে ব্যবহার করা গেলেও, সংবেদনশীল নথি, ছবি বা অন্যান্য তথ্য লেনদেনের ক্ষেত্রে এগুলো এড়িয়ে চলা উচিত। ক্লাউডে রাখা নথির ওপর আপনার কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই, এবং তথ্য সুরক্ষিত রাখার জন্য আপনি সেবাদাতার ওপর পুরোপুরি নির্ভরশীল।

সঞ্চিত তথ্যে স্বয়ংক্রিয় এনক্রিপশনসহ একটি বিকল্প ক্লাউড-ভিত্তিক সমাধান হলো ব্লাউক্লাউড(BlauCloud)। ওউনক্লাউডের (ownCloud) ওপর ভিত্তি করে তৈরি করা এই সেবাটি ওপেন-সোর্স বা মুক্ত উৎসের ক্লাউড সলিউশন। যেহেতু তথ্যগুলো জার্মানিতে সংরক্ষণ করা হয়, তাই ব্যবহারকারীরা জার্মানির তথ্য সুরক্ষা আইনের সুবিধা লাভ করে থাকেন। অবশ্য এরপরেও এই আরও সুরক্ষিত পদ্ধতির অর্থ হলো আপনি আপনার তথ্য যেখানে জমা রাখছেন সেই হোস্টকে বিশ্বাস করছেন।